ENGLISH ঢাকাঃ রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৩:৩৫

প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০১৭ ০৪:০১:০৬ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

বাংলাদেশিদের উচ্চশিক্ষার জন্য পছন্দ মালয়েশিয়া

দ্যা ডেইলি ডন

লেখাপড়ার পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ বেশি পছন্দ শিক্ষার্থীদের।  ইউরোপ-আমেরিকার চেয়ে কম খরচের কারণে বাংলাদেশিদের জন্য উচ্চশিক্ষার আকর্ষণীয় ও পছন্দের দেশ হচ্ছে মালয়েশিয়া। আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিবেদন এবং উচ্চশিক্ষা গ্রহণেচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য মিলেছে।

রাজধানীর কৃষিবিদ কনভেনশন হলে তিন দিনের মালয়েশিয়া উচ্চশিক্ষা মেলা অনুষ্ঠিত হয়।  মেলায় মালয়েশিয়ার বেশকিছু প্রথম সারির শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি অংশ নেয়। এই মেলায় ছিল শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপচেপড়া ভিড়।

মেলায় অংশ নেওয়া কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মালয়েশিয়ায় লেখাপড়ার জন্য ন্যূনতম এসএসসি বা ‘ও’ লেভেল অথবা দাখিল পাস হলে স্টুডেন্ট ভিসায় যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এসএসসি ও সমমানের শিক্ষা ডিপ্লোমা লেভেল এবং এইচএসসি ও সমমান হলে ডিপ্লোমা ও ব্যাচেলর উভয় প্রোগ্রামেই যাওয়ার সুযোগ থাকছে। মালয়েশিয়ায় স্টাডি গ্যাপ গ্রহণযোগ্য হওয়ায় স্নাতক পাস করেও ডিপ্লোমা অথবা পুনরায় ব্যাচেলের জন্য যাওয়া যায়। বাধ্যবাধকতা নেই আইইএলটিএস স্কোর। এটি কয়েকটি বিষয়ের জন্য প্রযোজ্য।

বাংলাদেশ থেকে সাড়ে ৩ ঘণ্টা প্লেন ভ্রমণে মালয়েশিয়ায় পৌঁছা যায়। প্লেন ভাড়াও কম। যেহেতু মালয়েশিয়া স্টুডেন্ট ভিসা মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা, সেহেতু ইচ্ছা হলেই বাংলাদেশে খুব সহজে চলে আসা যায়। এ ছাড়া খেলাপড়ার মানও ভালো। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি পার্ট টাইম জবের সুযোগ রয়েছে

বাংলাদেশিদের কাছে মালয়েশিয়ায় উচ্চশিক্ষা কাঙ্ক্ষিত হওয়ার যৌক্তিক কারণ ব্যাখ্যা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক সৈয়দা তাহমিনা আখতার। তিনি বলেন, দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো চেষ্টা করছে কাঙ্ক্ষিত মানে পৌঁছাতে। কিছু দুর্বলতা রয়েছে। গ্লোবাল স্টান্ডার্ড এডুকেশনের জন্য আমাদের সামর্থ্যবানরা চলে যাচ্ছেন বিদেশে। তিনি বলেন, আগে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলোয় যেত। কারণ সেখানে পড়ালেখার পাশাপাশি উপার্জনের বড় একটি সুযোগ ছিল। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের তুলনায় মালয়েশিয়ায় শিক্ষা ব্যয় অনেক কম। তবে জেনে-শুনে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ ওই শিক্ষাবিদের।

মেলা প্রাঙ্গণে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেকট্র্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক করা শিক্ষার্থী সায়মন বলেন, দেশের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর খরচ মালয়েশিয়ায় খরচের সমান। সেখানে আন্তর্জাতিক মানের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় পড়ার সুযোগ থাকছে সমপরিমাণ। এ ছাড়া পার্ট টাইম জবের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

ঢাকার স্বনামধন্য এক কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী মোস্তাকিম, তানিয়া ও সজল জানান, ইউরোপ-আমেরিকার চেয়ে মালয়েশিয়ার উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো পছন্দ। সজল জানান, তার আত্মীয়দের মাধ্যমে খোঁজ নিয়েছেন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি এই মেলায় অংশ নিয়েছেন। খোঁজখবর নিয়ে তিনি ভর্তি হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মোস্তাকিমও চান মালয়েশিয়া থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে।

মেলা আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া স্টাডি সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুর রহিম খান মুকুল জানান, শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের অবশ্যই সচেতনতার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় পছন্দ করতে হবে। তথ্য-উপাত্ত জেনে সঠিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলে প্রতারিত হওয়ার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, ইউরোপ-আমেরিকার চেয়ে কম খরচের কারণে বাংলাদেশিদের জন্য উচ্চশিক্ষার পছন্দের দেশ মালয়েশিয়া। এখানে রয়েছে স্কলারশিপ ও লেখাপড়ার পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ।

উল্লেখ্য, ইউনেস্কোর এক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চশিক্ষার শীর্ষ পছন্দ মালয়েশিয়া। ‘গ্লোবাল ফ্লো অব টারশিয়ারি লেভেল স্টুডেন্টস’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, বছরে মোট ২৪ হাজার ১১২ শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাড়ি জমান। তাদের মধ্যে ৫ হাজার ২৭১ জন যান মালয়েশিয়ায়। এ ছাড়া যান যুক্তরাজ্যে ৪ হাজার ৮৬৮, যুক্তরাষ্ট্রে ৪ হাজার ৫৬৫, অস্ট্রেলিয়ায় ৩ হাজার ৯১৫, কানাডায় ১ হাজার ৬১৪, জাপানে ১ হাজার ৫৪, জার্মানিতে ৯৯৩, ভারতে ৭৭৪, সৌদি আরবে ৭৩২ ও ফিনল্যান্ডে ৫৩৫ জন।

আরো খবর

    ট্যাগ নিউজ