ENGLISH ঢাকাঃ মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮, ১২:৪৭

প্রকাশিত : বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ১০:৩৬:৪০ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

বিএনপির ৬ ঘণ্টার অনশন ৩ ঘন্টায় শেষ

দ্যা ডেইলি ডন

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনশন কর্মসূচি পালন করে দলটি।  বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শুরু হওয়া এ  কর্মসূচি বিকেল ৪ টায় শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তিন ঘন্টা আগেই শেষ হয়। দুপুর পৌনে ১টার দিকে অনশন ভাঙার ঘোষণা দেয়ার পর জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় অবস্থানরত নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তবে রমনা বিভাগের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার সাংবাদিকদের জানান ,জনদুর্ভোগের কারণে অনশন কর্মসূচি শেষ করতে বিএনপিকে অনুরোধ করা হয়েছে। 

অনশন কর্মসূচিকে ঘিরে প্রেসক্লাব এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ ও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ অবস্থান করছিল।  জলকামানের গাড়িও প্রস্তুত রাখা ছিল। বেলা ১১টার পর সন্দেহভাজন নেতাকর্মীদের আটক করতে তৎপর হয় পুলিশ। একপর্যায়ে এক কর্মীকে আটক করলে অন্যদের সঙ্গে পুলিশের বাকবিতণ্ডা হয়। পরে পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়।

অনশনের শেষ করার মুহূর্তে ডিবি পুলিশ বিএনপি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে আটকের চেষ্টা করলে নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে শেষ পর্যন্ত সোহেল কৌশলে প্রেসক্লাব এলাকা ত্যাগ করতে সক্ষম হন।

 

অনশন কর্মসূচিতে যোগ দিতে বুধবার সকাল ৮টা থেকে প্রেস ক্লাবের সামনে খণ্ড খণ্ড ভাবে জড়ো হন বিএনপি নেতাকর্মীরা।  অনশনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সিনিয়র নেতারা অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে রয়েছেন জোটের অন্যতম শরীক ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব,মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল করিম,খেলাফত মজলিসের চেয়ারম্যান মাওলানা মো.ইসহাক, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও এলডিপির শাহাদাৎ হোসেন সেলিম প্রমুখ অনশনে অংশ নিয়েছেন।

৩০ সেকেণ্ডের বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘আপনারা বলেছেন একটার মধ্যে কর্মসূচি শেষ করতে আমরা সেই অনুযায়ী কাজ করেছি। আপনারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা শান্ত থাকুন। আমরা অবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, পুলিশের অনুরোধে দুপুর ১টার মধ্যে আমরা আমাদের কর্মসূচি শেষ করতে বাধ্য হচ্ছি। খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে বিএনপিকে দুর্বল করে তারা নির্বাচন করতে চায়। খালেদা জিয়া এবং বিএনপিকে ছাড়া নির্বাচন করতে দেয়া হবে না। 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গেলো বৃহস্পতিবার বকশীবাজারের বিশেষ আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন। এরপর থেকেই বিএনপি নেত্রীকে পুরনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রথম তিনদিন কারাগারের সিনিয়র জেল সুপারের পরিত্যক্ত কক্ষে সাধারণ কয়েদি হিসেবে রাখা হয়। পরে শনিবার রাতে তাকে মহিলা ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয়।

আরো খবর

    ট্যাগ নিউজ

    সর্বশেষ খবর