ENGLISH ঢাকাঃ শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০৪:২৬

প্রকাশিত : বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ০৪:১৪:৪৬ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ঋণ কেলেঙ্কারিতে কাউকে ছাড় নয়

দ্যা ডেইলি ডন

ব্যাংক ঋণ কেলেঙ্কারিতে দায়ী এবং অর্থপাচার প্রতিবেদনের তালিকায় যাদের নাম এসেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিগত দিনে ব্যাংক ঋণ নিয়ে যারা সমস্যা সৃষ্টি করেছে তাদের সবার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। কাউকে ছাড় দেওয়া হয়নি। আগামীতেও কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। এ বিষয়ে বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নেওয়া হবে, যাতে ব্যাংক খাতের কোনো ক্ষতি না হয়। তবে অর্থপাচার রোধে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আরও সতর্ক এবং সচেতন থাকার প্রয়োজন রয়েছে মনে করেন জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে পোশাক খাত বিষয়ক এক কর্মশালা শেষে ব্যাংক ঋণ কেলেঙ্কারি এবং প্যারাডাইস পেপারে কয়েকজন বাংলাদেশির নাম থাকার বিষয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। 'তৈরি পোশাক শিল্পের সম্প্রসারণ ও সহজীকরণ' শীর্ষক এ কর্মশালার আয়োজন করে বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউট (বিএফটিআই)।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে যারা সমস্যা সৃষ্টি করেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা-মোকদ্দমা হয়েছে। হলমার্ক, ডেসটিনিসহ কিছু প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন পন্থায় যারা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছে, তারা সবাই জেলে আছে। অনেককে দুদক ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তিনি বলেন, লাখ লাখ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কিছু সমস্যা হয়েছে। হয়তো কেউ ব্যবসা করতে পারেনি, কেউ হয়তো জালিয়াতি করেছে। এ বিষয়ে সরকার বা মন্ত্রণালয় তো নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করতে পারে না। অবশ্যই মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলে আশা করেন তিনি।

ব্যাংক ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই জানিয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, 'কোনো ব্যাংক বলতে পারবে না আমরা ব্যাংক ঋণের বিষয়ে কারও জন্য সুপারিশ করি, তদবির করি। এটা ব্যাংকের নিজেদের এখতিয়ার, তারা দেয়।'

তিনি বলেন, শুধু ব্যাংক ঋণে ত্রুটি নিয়ে কথা হচ্ছে, অথচ ব্যাংকিং খাতের জন্যই আজ ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারিত হয়েছে। বড় শিল্পগুলোর প্রকৃত ব্যবসায়ীরা ব্যাংক ঋণ নিয়ে ব্যবসা করেই অর্থনীতিকে এগিয়ে নিচ্ছেন। সুতরাং ঋণ দিতেও হবে, আবার ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সতর্কও হতে হবে, যাতে সঠিক জায়গায় ঋণ যায়।

আরো খবর

    ট্যাগ নিউজ

    সর্বশেষ খবর